পশ্চিমবঙ্গের বিখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত আর নেই। বৃহস্পতিবার সকালে দক্ষিণ কলকাতার নিজের বাসভবনে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর। অনেক দিন ধরেই বুদ্ধদেব কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন, চলছিল ডায়ালাইসিস। সঙ্গে যুক্ত হয়েছিল ছিল বার্ধক্যজনিত সমস্যা।

বুদ্ধদেব দাশগুপ্তের মৃত্যুতে দুই বাংলার সংস্কৃতি অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রয়াতের ছবি দিয়ে স্মৃতিচারণও করেন অনুরাগীরা।

‘স্বপ্নের দিন’ ও ‘উত্তরা’ ছবির জন্য পরিচালক হিসেবে জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি। এছাড়া তার ৫টি ছবি সেরা ছবির শিরোপা পেয়েছিল জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রতিযোগিতায়। বাংলার সেরা ফিচার ফিল্মের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছে তার আরও দুটি ছবি ‘দূরত্ব’ এবং ‘তাহাদের কথা’।

চলচ্চিত্র পরিচালক হিসেবে খ্যাতি অর্জন করলেও তার চলাচল ছিল সাহিত্য জগতেও। কবি বুদ্ধদেবের কলমে উঠে এসেছে একাধিক কবিতা, যা নিয়ে আজও চর্চা হয়। তার কাব্যগ্রন্থের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ‘রোবটের গান’, ‘ছাতা কাহিনি’, ‘গভীর আড়ালে’ ইত্যাদি।

দক্ষিণ পুরুলিয়ার আনারাতে শৈশব কেটেছে বুদ্ধদেবের। অর্থনীতি নিয়ে স্কটিশ চার্চ কলেজে পড়াশোনা করেছেন তিনি। পড়াশোনা ও সাহিত্য জগৎ থেকে পরিচালক হয়ে ওঠার পিছনে বড় ভূমিকা পালন করেছে কলকাতা ফিল্ম সোসাইটি। চার্লি চ্যাপলিন, ইঙ্গমার বার্গম্যান, আকিরা কুরোসাওয়ার সঙ্গে পরিচয় ঘটে সেখানেই।

বুদ্ধদেব পরিচালিত বাঘ বাহাদুর, চরাচর, লাল দরজা, মন্দ মেয়ের উপাখ্যান, কালপুরুষ ভারতের জাতীয় পুরস্কার পায়। পরিচালক হিসেবেও দুইবার জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিলেন। দেশের বাইরে বিদেশেও একাধিক সম্মান পেয়েছেন বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত। ভেনিস চলচ্চিত্র উৎসব, বার্লিন চলচ্চিত্র উৎসবেও প্রশংসা পেয়েছে তার ছবি।

এনএনআর/





Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here