সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: সম্ভাবনাময় বিপিও শিল্পের উন্নয়নে বাজেটে সহায়তা বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং (বাক্কো)। রোববার (৬ জুন) বাক্কোর পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংগঠনটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আইসিটি সেক্টরের মধ্যে সবচেয়ে সম্ভাবনাময় কর্মসংস্থান তৈরির যে খাতটি, তা হচ্ছে বিপিও। কিন্তু এই অপার সম্ভাবনাময় খাতের উন্নয়নে এই ধরনের কোনো উদ্যোগ এই বাজেটে পরিলক্ষিত হয়নি। বিপিও খাতের উন্নয়নে এবং সম্প্রসারণে তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর সেবার উপর ৫ শতাংশ হারে উৎসে মূল্য সংযোজন কর থেকে অব্যহতি দেওয়া না হলে গ্রাহকের চাহিদা মতো সেবার ব্যয় আরও অনেকাংশে বেড়ে যাবে।

তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর সেবার ওপর ৫ শতাংশ হারে উৎসে মূল্য সংযোজন কর থেকে অব্যাহতি দেওয়ার বাক্কোর দেওয়া প্রস্তাবটি আমলে নেওয়া হয়নি। আইটি বা আইটিইএস পরিষেবার সঙ্গে সম্পৃক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোতে স্থানীয়ভাবে বিভিন্ন কম্পিউটার ও কম্পিউটার সামগ্রী ক্রয়ে মূল্য সংযোজন কর এবং উৎসকর থেকে অব্যাহতি দেওয়ার বিষয়টিও প্রকাশিত বাজেটে বিবেচনা করা হয়নি।

সংগঠনটি আরও বলছে, দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলা এবং এই জনশক্তির কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে বিপিও শিল্পে, তাই প্রয়োজন সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা এবং সুদৃষ্টি। সেলক্ষ্যে বিপিও শিল্পের অবকাঠামোগত উন্নয়ন, প্রশিক্ষণ কার্যক্রম, সহজ শর্তে ঋণ এবং সেন্টার অব এক্সিলেন্স গড়ে তোলার জন্য ৩০০ কোটি টাকার তহবিল রাখার প্রস্তাব করলেও এই বাজেটে তা উপেক্ষিত হয়েছে।

বিপিও শিল্পের সর্বোপরি উন্নয়নের ধারা বজায় রাখার জন্য বাক্কো’র দেওয়া প্রস্তাবসমূহ বিবেচনা করে বাজেটের পরবর্তী অধিবেশনে এর অন্তর্ভুক্তি এবং তথ্যপ্রযুক্তি খাতের জন্য সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা ও বাজেট বরাদ্দ করা গেলে বিপুল জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে এবং একইসঙ্গে বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধশালী হবে বলেও সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

সারাবাংলা/ইএইচটি/এমও





Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here